August 17, 2022
Thursday, 23 April 2020 11:32

রাতে হলেই নবীগঞ্জ শহর ভূতের শহর হয়ে পড়ে

✍ মোঃ হাসান চৌধুরী নবীগঞ্জঃ

নবীগঞ্জ উপজেলায় প্রায় কয়েক লক্ষাধিক মানুষের বসবাস। যে শহরটিতে প্রতিনিয়ত হাজারো মানুষের আনোগোনা থাকতো, সেই শহরের রাস্তা-ঘাটগুলো এখন একদম ফাঁকা। কোথাও কোনো লোকজন নেই। চারিদিকে শুধুই কবরের নিস্তব্ধতা এ যেন ভূতে শহর। দেশের করোনা ভাইরাস সংক্রমনে গত (২৫ মার্চ) বুধবার সকাল থেকেই উপজেলা প্রশাসনের অভিযান শুরু হয়। শহরে সব ধরনের জন সমাগম এড়াতে কিছু গাড়িচালক ও মানুষদের ধাওয়া করা হয়েছে। এরপর থেকেই পুরো শহরটি যেন মানুষ শূন্যে হয়ে পড়ে। পাশাপাশি পুলিশের একটি টিম শহরে টহল দেয়। নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিত কুমার পাল সহ পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা শহরের রাস্তায় লোকজনকে বের না হয়ে বাসা-বাড়িতে থাকার জোরালো আহবান জানান। জরুরি প্রয়োজনে কিছু মানুষ শহরে আসছেন। সরেজমিন (২৩ এপ্রিল) বৃহস্পতিবার দুপুরে নবীগঞ্জ শহরসহ বেশ কয়েকটি গুরত্বপূর্ণ বাজার ঘুরে দেখা যায়, মানুষের তেমন কোন আনাগোনা নেই। গণপরিবহন চলাচল নেই। শুধু কিছু রিকশা চলতে দেখা গেছে। প্রশাসনের লোকদের নজরদারি দিতে দেখা গেছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে বাড়িতেই অবস্থান করছেন নবীগঞ্জের ১৩টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার প্রায় কয়েক লক্ষাধিক মানুষ। প্রশাসনের কড়া নজরদারিতে নবীগঞ্জ পৌর শহরসহ গ্রামাঞ্চলের বাজার এবং রাস্তাগুলো জনশূন্য করে দিয়েছেন। নবীগঞ্জের সর্ববৃহৎ বাজার গাজীর টেক, মধ্য বাজার, কাজির বাজার, ইনাতগঞ্জ বাজার,ইমামবাড়ী বাজার,সৈয়দ পুর বাজার, বাংলা বাজার ও হীরাগঞ্জ বাজারে আগের মতো আর মানুষের আনোগোনা নেই এ যেন এক জনশূন্যে মরুভূমি।এছাড়া নবীগঞ্জ পৌর বাজারসহ ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিশ্বজিত কুমার পালসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বাহুবল সার্কেল) পারভেজ আলম চৌধুরী ও নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমানের  নেতৃত্বে সার্বক্ষণিক মানুষের নিরাপত্তার স্বার্থে মাঠে ময়দানে থাকছে পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম। ফলে অতীব জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের হতে দেখা যাচ্ছে না।উপজেলার বেশ কয়েক টি রাস্তায় বসানো হয়েছে পুলিশ চেক পোষ্ট। যাতে করে বহিরাগত লোকজন এলাকায় প্রবেশ না করতে পারে। এলাকার রাস্তা গুলোতে প্রশাসন ও পুলিশের রয়েছে কড়া নজরদারি। করোনা সংক্রমন রোধে প্রথম থেকেই  বন্ধ রয়েছে শহরের সকল দোকানপাট। করোনা আতঙ্কে আশপাশের মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে না বা বের হতে দিচ্ছে না পুলিশ।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বিশ্বজিত কুমার পাল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক মানুষের নিরাপত্তার জন্য আমরা সর্বদা মাঠে কাজ করছি। করোনা মোকাবেলায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি রাখা হয়েছে। জন সমাগম এড়াতে নবীগঞ্জ পৌরশহরসহ উপজেলার সকল গুরুত্বপূর্ণ বাজারে উপজেলা প্রশাসন সেনা বাহিনী ও পুলিশ প্রশাসনের লোকজন মাধ্যমে মনিটরিং চলছে। করোনা ভাইরাসে কাউকে আতঙ্কিত না হয়ে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সচেতন থেকে বাড়িতে অবস্থান করার জন্য পরামর্শ দিচ্ছি এবং কৃষক যাহাতে  ধান ঘরে তুলতে পারেন দুযোর্গের আগে সেদিকে কড়া নজরাধি চলছে।

Last modified on Thursday, 23 April 2020 11:58
Login to post comments
  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular